খবরের কাগজ, টেলিভিশন কিংবা আন্তর্জাল, যেখানেই চোখ রাখি না কেন, শুধুই খারাপ খবর, মন খারাপ করে দেওয়ার মত, আতংকিত করার মত খবর। চতুর্দিকে শুধু যুদ্ধ চলছে - লিঙ্গ বৈষম্যের যুদ্ধ , ধর্মের নামে যুদ্ধ , বর্ণের নামে যুদ্ধ , জাতের নামে যুদ্ধ , অর্থের জন্য যুদ্ধ , অধিকারের জন্য যুদ্ধ , শান্তি্র আশ্বাসে যুদ্ধ। চারিদিকের খারাপ খবরগুলো শুনতে শুনতে আমরা ধরে নিতে বাধ্য হচ্ছি যে এই পৃথিবীটা নিঃশব্দ হয়ে গেছে, মরে গেছে, হেরে গেছে, তার হৃদয় টুকরো টুকরো হয়ে শুকিয়ে প্রাণহীন হয়ে গেছে। কিন্তু সত্যিই কি তাই?

আমরা তো জানি আমাদের প্রত্যেকের মনের গভীরতম কোণে তিরতির করে জ্বলছে একটা ছোট্ট আলোর শিখা। সেই আলো সহমর্মীতার কথা বলে, সহনশীলতার পাঠ দেয়, উষ্ণতার ছোঁয়া দেয়। একাকীত্বে কিংবা ভীড়ের মাঝে, সেই আলো আমাদের জন্য খুলে বসে মানবসভ্যতার যত ভুলে যাওয়া রূপকথা - লোককথা- উপকথা। সেইসব গল্প - অনুভূতি - শিক্ষা, যা শত সহস্র যুগ ধরে আমাদের বিভিন্নতার মূল্য বুঝতে শিখিয়েছে, ধৈর্য নিয়ে, ভালোবাসা দিয়ে, মিলেমিশে বেঁচে থাকতে শিখিয়েছে।

আমরা জানি, এই মূহুর্তে, উদ্দেশ্যমূলকভাবে এক সর্বগ্রাসী অন্ধকার তৈরি করা হচ্ছে। সেই অন্ধকার চাইছে আমাদের উস্কে দিতে- চাইছে একে অপরকে অবিশ্বাস করতে, হেয় করতে, ঘৃণা করতে; একে অপরকে রক্তাক্ত করতে। চাইছে সবাইকে চুপ করিয়ে দিতে, নিস্তব্ধ করে দিতে। তার ভয়ে, অযুত নিযুত আলোর শিখা নীরব হয়ে, নিঃশব্দে মুখ লুকিয়ে আছে - বড় রাস্তার মোড়ে বা পাড়ার গলিতে, বাজারে বা হাসপাতালে, ট্রেনে-বাসে-রেলস্টেশনে। মুখ বুজে মনমরা হয়ে পড়ে আছে অনেকদিন না খোলা জামার ভাঁজে, কিংবা পুরনো অ্যাল্‌বামের পাতায়।

সেই অন্ধকারকে অচলায়তন হয়ে ওঠার থেকে থামানোর একটাই উপায়। সময় হয়েছে আমাদের সেই ছোট্ট ছোট্ট আলোর শিখাগুলিকে নিশ্চুপে আড়ালে না রেখে অন্ধকারের সামনে তুলে ধরার। রাশি রাশি আলোর বিন্দুই তো একত্রিত হয়ে করতে পারে বিশাল অন্ধকারের মোকাবিলা।

আসুন , আপনার নিজস্ব আলোর গল্প শোনান আমাদের। অবিশ্বাস, অন্ধকার, অবহেলা, ঘৃণা, হিংসা, দ্বেষের, প্রতারণার কাহিনির বদলে সহযোগিতার, সহমর্মীতার, সহনশীলতার গল্প বলুন। ভালোবাসার, আস্থার, নির্ভরতার কথা শোনান। বিভিন্নতার, বিবিধের সহাবস্থানের চিরকালীন আখ্যানগুলিকে ভাগ করে নিন সবার সাথে। নিঃশব্দ না থেকে, নিস্তব্ধ না থেকে কথা বলুন। আমাদের এই উদ্যোগ কোনোপ্রকার রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত নয়, বরং মানবিকতার দাবীতে, আলোর খোঁজে, নৈঃশব্দ্য ভাঙার জন্যেই চলতে শুরু করেছে। আপনাদের প্রত্যেকের গল্প শুনতে, প্রত্যেকের আলোর উষ্ণতা পেতে সাগ্রহে অপেক্ষা করছে 'ব্লগব্লগম'- 'সই'-এর নিজস্ব ব্লগের নতুন সিরিজ - 'এ নৈঃশব্দ্য আত্মঘাতী/ Silence like a Cancer grows'।